Monday, June 24, 2024
Homeবাংলাদেশসুপারি চুরির ঘটনায় রিমান্ড, যৌক্তিকতা নিয়ে প্রশ্ন

সুপারি চুরির ঘটনায় রিমান্ড, যৌক্তিকতা নিয়ে প্রশ্ন

হাইকোর্টের বিচারপতি আবু তাহের মো. সাইফুর রহমানের রংপুরের বাগান বাড়ি থেকে সুপারি চুরির ঘটনায় এক যুবককে দুই দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে। গতকাল বুধবার রিমান্ড শেষে ওই যুবককে কারাগারে পাঠানো হয়। সামান্য চুরির ঘটনায় এভাবে রিমান্ডে নেওয়ার যৌক্তিকতা রয়েছে কি না তা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে।

পুলিশ ও মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, গত রোববার দুই-তিনজন বিচারপতি আবু তাহের মো. সাইফুর রহমানের ওই বাগান বাড়িতে সুপারি চুরি করতে যায়। সেসময় বাগানের কর্মচারী সেলিম রহমান বিষয়টি বুঝতে পেরে থানায় খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে সাকিব রহমান জয় নামে এক যুবককে আটক করে, সে সময় তার সঙ্গে থাকা অন্যরা পালিয়ে যায়।

ঘটনাস্থল ৩৫৬টি সুপারি পায় পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদে চুরির ঘটনাটি স্বীকার করেন ওই যুবক। সঙ্গে থাকা রাহাত এবং অপর কিশোর মানিকের নামও জানান তিনি। ওই দিনই বাগান কর্মচারী সেলিম রহমান বাদী হয়ে ওই তিনজনের নামে মামলা করেন। মামলার পর আটক যুবকসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার দেখায় পুলিশ।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা রংপুর মেট্রোপলিটন হারাগাছ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) কমল মহান্ত জানান, গ্রেপ্তারের পর আসামিরা চুরির দায় স্বীকার করলে আদালতের মাধ্যমে তাদের কারাগারে পাঠানো হয়।

রংপুর মেট্রোপলিটন হারাগাছ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজাউল করিম বলেন, চুরির ঘটনায় ওই যুবকের সঙ্গে আর কারা কারা ছিলো তা জানতে রিমান্ডে নেওয়া হয়।

চুরির মতো সামান্য অপরাধে রিমান্ডের প্রয়োজন ছিলো কি না, জানতে চাইলে ওসি বলেন, অপরাধের ধরন, প্রকৃতি ও কারা জড়িত তা জানতে পুলিশ আসামিকে রিমান্ডে নিতে পারে।

এ বিষয়ে রংপুর জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি ও প্রবীণ আইনজীবী পিপি আব্দুল মালেক আমাদের সময়কে জানান, পুলিশ ইচ্ছে করলেই যেকোন আসামিকে রিমান্ডে নিতে পারে। তবে সুপারি চুরির ঘটনায় রিমান্ড নেওয়ার প্রয়োজন পড়ে না।

রংপুর জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক আইনজীবী অ্যাডভোকেট আব্দুল হক প্রামাণিক বলেন, খুন, ধর্ষণসহ বড় ধরনের অপরাধের সংশ্লিষ্টতা পেলে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আসামিদের রিমান্ডে নিতে পারে পুলিশ। কিন্তু সুপারি চুরির মতো সাধারণ অপরাধ ও চুরির বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার পরও পুলিশ রিমান্ডে নেওয়ার পেছনে বিশেষ কোনো কারণ থাকতে পারে। তবে পুলিশ ইচ্ছে করলেই যেকোন আসামিকেই রিমান্ডে নিতে পারে।

- Advertisment -
Google search engine

Most Popular