Saturday, April 13, 2024
Homeফিচারইউক্রেনকে ৭০ কোটি ডলার দিচ্ছে বিশ্বব্যাংক

ইউক্রেনকে ৭০ কোটি ডলার দিচ্ছে বিশ্বব্যাংক

ইউক্রেন সরকারের কর্মকাণ্ড পরিচালনা, বেতন-ভাতা ও পেনশন প্রদানে সহায়তা করতে দেশটির জন্য ৭০ কোটি ডলারের জরুরি তহবিল বরাদ্দ দিয়েছে বিশ্বব্যাংক। ইউক্রেনে রাশিয়ার হামলার পর যে পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে তা কাটিয়ে উঠতেই এই জরুরি সহায়তা দেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছে সংস্থাটি।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, বিশ্বব্যাংক মূলত ইউক্রেনের অর্থনৈতিক বিকাশের জন্য ৩ বিলিয়ন ডলারের একটি কর্মসূচি হাতে নিয়েছে। ব্যাংকটি সে লক্ষ্যেই কাজ করছে বলে জানিয়েছে বিশ্বব্যাংকের প্রেসিডেন্ট ডেভিড ম্যালপাস।

তিনি বলেন, ‌‘বিশ্বব্যাংক দ্রুততার সঙ্গে ইউক্রেনকে সাহায্যের জন্য যা যা করা দরকার তাই করছে। দেশটিকে সহিংসতা ও আর্থিক ক্ষতি কাটিয়ে ওঠার লক্ষ্যে বিশ্বব্যাংক সোচ্চার রয়েছে।’

বিশ্বব্যাংক কেবল ইউক্রেনকেই নয়, এর প্রতিবেশী রাষ্ট্রগুলোকেও সাহায্যের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। যুদ্ধ শুরু হওয়ার পরে ইউক্রেন থেকে প্রায় ১ দশমিক ৭ মিলিয়ন শরণার্থী পার্শ্ববর্তী দেশগুলোতে আশ্রয় নিয়েছে। বিশ্বব্যাংক ছাড়াও যুক্তরাজ্যও ইউক্রেনের আর্থিক অবস্থার পুনরুদ্ধারের জন্য ১০০ মিলিয়ন ডলার সহযোগিতা প্যাকেজের ঘোষণা দিয়েছে।

যুদ্ধের ফলে সংকটকালীন অবস্থা থেকে পুনরুদ্ধারের জন্য ইউক্রেনের পাশে সবসময় বিশ্বব্যাংক রয়েছে বলে জানায় ব্যাংকটির প্রেসিডেন্ট। বিশেষ করে হাসপাতালের সেবাদানকারী কর্মচারী, পেনশনভোগী অবসরপ্রান্ত জ্যেষ্ঠ সম্প্রদায় ও সামাজিক কর্মসূচিতে অর্থের জোগান দিচ্ছে বিশ্বব্যাংক।

বিশ্বব্যাংকের অনুমোদনকৃত প্যাকেজের ৩৫০ মিলিয়ন ডলার ঋণ হিসেবে দেওয়া হচ্ছে। এখানে নেদারল্যান্ডস ও সুইডেন ইউক্রেনের জামানতদার হিসেবে কাজ করছে। এ ছাড়া যুক্তরাষ্ট্র, ডেনমার্ক, লাটভিয়া, লিথুয়ানিয়া, আইল্যান্ড ও জাপান ইউক্রেনকে ২৩৪ মিলিয়ন ডলার অর্থ এককালীন সাহায্য হিসবে দিচ্ছে।

গত সপ্তাহে বিবিসিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ম্যালপাস বলেন, ‘ইউক্রেন যুদ্ধ বিশ্বের জন্য এক বড় রকমের বিপর্যয়। যুদ্ধটি এমন সময়ে হচ্ছে যখন সমগ্র বিশ্ব করোনা-পরবর্তী মুদ্রাস্ফীতির পেষণে পিষ্ট।’

- Advertisment -
Google search engine

Most Popular