Tuesday, May 14, 2024
Homeঅর্থনীতিসেচে বিদ্যুৎ ঘাটতির শঙ্কা, ডিজেল নিয়েও উদ্বেগ

সেচে বিদ্যুৎ ঘাটতির শঙ্কা, ডিজেল নিয়েও উদ্বেগ

চলতি সেচ মৌসুমে একাধিক সংকট দেখা দিয়েছে সরকারের সামনে। গ্যাস সংকটে বিদ্যুৎ উৎপাদন কম হওয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। ফলে সেচে পর্যাপ্ত বিদ্যুৎ সংকটের শঙ্কা রয়েছে। একই সঙ্গে রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে আন্তর্জাতিক বাজারে জ¦ালানি তেলের দাম অনেক বেশি বেড়ে যাওয়ায় এর আমদানি এবং সরবরাহব্যবস্থা স্বাভাবিক রাখা নিয়ে চিন্তিত বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশন (বিপিসি)। ফলে কৃষকের ডিজেলের স্বাভাবিক সরবরাহ নিয়েও অনিশ্চয়তা থাকছে। এ অবস্থায় এবারের সেচকালীন পরিস্থিতি সরকারের সামনে এক নতুন চ্যালেঞ্জ নিয়ে হাজির হয়েছে।

বিপিসি বলছে, সাধারণত ফেব্রুয়ারি থেকে মে পর্যন্ত চার মাস সেচ মৌসুম হিসেবে গণ্য করা হয়। এ সময় কৃষিকাজে স্বাভাবিক সময়ের তুলনায় অতিরিক্ত বিদ্যুৎ প্রয়োজন হয়। একই সঙ্গে প্রয়োজন হয় অতিরিক্ত জ¦ালানি তেল এবং গ্যাসের। তেলভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের পাশাপাশি কৃষকের ট্রাক্টর, পাওয়ারটিলার, সেচপাম্পসহ বিভিন্ন কাজে জ¦ালানি তেলের অতিরিক্ত চাহিদা থাকে। অব্যাহত বিদ্যুৎ উৎপাদন বাড়াতে চাহিদা বেড়ে যায় প্রাকৃতিক গ্যাসেরও। তবে চলতি সেচ মৌসুমে গ্যাসের সংকটের কারণে গ্যাসভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্রগুলোয় উৎপাদন ব্যাহত হওয়ার শঙ্কা রয়েছে। এ ছাড়া গত নভেম্বরে এক দফা ডিজেলের দাম বেড়ে যাওয়ায় সামগ্রিক কৃষিকাজে তৃণমূলের কৃষকদের অনেক খরচ বেড়ে গেছে। দাম বাড়ার ঠিক চার মাসের মাথায় রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে আন্তর্জাতিক বাজারে জ¦ালানি তেলের দাম বেড়ে যাওয়ায় দেশের বাজারে কৃষকের ডিজেল সরবরাহ নিয়ে উদ্বেগ দেখা দিয়েছে।

সারাদেশে কৃষকদের ফসলের জমিতে সেচ দিতে বিদ্যুৎ এবং জ¦ালানি তেল বিশেষ করে ডিজেলের কোনো বিকল্প নেই। বিদ্যুৎ এবং জ¦ালানি তেলের নিরবচ্ছিন্ন সরবরাহ ছাড়া ব্যাহত হবে ফসল উৎপাদন। ফলে প্রতিবছরের মতো এবারও প্রস্তুতি নিচ্ছে বিদ্যুৎ ও জ¦ালানি বিভাগ। সেচে জ¦ালানি তেল কৃষকের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে দিতে বিপিসিকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। একই সঙ্গে বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে প্রয়োজনীয় বিদ্যুৎ উৎপাদন ও সবরবরাহ নিশ্চিত করতে। বিশেষ করে উত্তরবঙ্গের রংপুর-রাজশাহী অঞ্চলে বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক রাখতে বড়পুকুরিয়া কয়লাখনি থেকে কয়লা সরবরাহ করে বড়পুকুরিয়ার কয়লাবিদ্যুৎ কেন্দ্রগুলোর উৎপাদন বাড়াতে বলা হয়েছে বিদ্যুৎ, জ¦ালানি ও খনিজসম্পদ মন্ত্রণালয় থেকে।

- Advertisment -
Google search engine

Most Popular